Monday, January 24, 2022
Homeটেকনোলজিবিকাশ মার্চেন্ট একাউন্ট খোলার নিয়ম (২০২১)

বিকাশ মার্চেন্ট একাউন্ট খোলার নিয়ম (২০২১)

বিকাশ মার্চেন্ট একাউন্ট খোলার নিয়ম, বিকাশ একটি জনপ্রিয় মোবাইল ব্যাংকিং। অনলাইন ব্যাংকিং কার্ড তথা পেপাল কার্ড, ভিসা কার্ড ইত্যাদির মত বিকাশ একাউন্ট দিয়েও এখন অনলাইনে/অপলাইনে বিল পে করা যায়। তবে, যাকে বিল পে করবেন তার একটি বিকাশ মার্চেন্ট একাউন্ট থাকতে হবে।

আমাদের অনেকেরই বিকাশ পার্সোনাল একাউন্ট রয়েছে। কিংবা আমরা জানি কিভাবে বিকাশ পার্সোনাল একাউন্ট খোলা যা। যদি না জেনে থাকি তাহলে পড়ুন;- বিকাশ একাউন্ট খোলার নিয়ম ২০২১ A টু Z খুঁটিনাটি

কিন্তু আমরা অনেকেই জানি না কিভাবে বিকাশ মার্চেন্ট একাউন্ট খোলা যায়। তো জেনে নিন বিকাশ মার্চেন্ট একাউন্ট সম্পর্কে বিস্তারিত…..

মার্চেন্ট একাউন্ট কি?

মার্চেন্ট একাউন্ট হলো এক ধরনের ডিজিটাল ব্যাংকিং যেখানে আপনি আপনার গ্রাহক থেকে কার্ড/মোবাইল ব্যাংকিং এর মাধ্যমে পেমেন্ট নিতে পারবেন।

মার্চেন্ট একাউন্টের সুবিধা

অনেকেই মার্চেন্ট একাউন্টের সুবিধা সম্পর্কে জানতে চান। তাদের জন্য জেনে রাখা ভালো যে, বিকাশ মার্চেন্ট একাউন্টের অনেক গুলো সুবিধা রয়েছে। তারমধ্যে অন্যতম কিছু সুবিধা হলো;-

  • বিকাশ মার্চেন্ট একাউন্টের মাধ্যমে অনলাইনে পেমেন্ট করতে পারবেন। যা আপনার জন্য অত্যান্ত নিরাপদ। কেননা বর্তমান সময় বাংলাদেশের পরিস্থিতি অনুযায়ী হাতে করে এত টাকা নিয়ে হাঁটা নিরাপদ নয়।
  • বিকাশ মার্চেন্ট একাউন্টে টাকার কোন লিমিট নেই। সাধারণত যেখানে পার্সোনাল একাউন্টে ২৫,০০০৳ লিমিট করে দেওয়া হয়। সেখানে আপনি বিকাশ মার্চেন্ট একাউন্টে লক্ষাধিক টাকা আদান-প্রদান করতে পারবেন।
  • বিকাশ মার্চেন্ট একাউন্টে সার্জ ফি কম।

বিকাশ মার্চেন্ট একাউন্ট খুলতে কি কি লাগে?

বিকাশ মার্চেন্ট একাউন্ট খুলতে চাইলে আপনার যেসব কাগজপত্র বা জিনিস প্রয়োজন হতে পারে তা হলো;-

  • একটি সিম কার্ড
  • জাতীয় পরিচয়পত্র/পাসপোর্ট/ড্রাইভিং লাইসেন্স। যে কোন একটি লাগবে।
  • আপনার প্রতিষ্ঠানের ট্রেড লাইসেন্স লাগবে।
  • পাসপোর্ট সাইজ ছবি ২ কপি।
  • একটি সচল ব্যাংক একাউন্ট লাগবে।
  • একটি ইমেইল একাউন্ট লাগবে।

কিভাবে বিকাশ মার্চেন্ট একাউন্ট খুলবেন?

বিকাশ মার্চেন্ট একাউন্ট সাধারণত দুইভাবে খোলা যায়। ১/অপলাইনে। ২/ অনলাইনে।

অপলাইনে বিকাশ মার্চেন্ট একাউন্ট খুলতে চাইলে উপরে উল্লেখিত নথিপত্র নিয়ে নিকটবর্তী গ্রাহক সেবা কেন্দ্রে যোগাযোগ করুন।

গ্রাহক সেবায় যাওয়ার আগে হেল্পলাইনে যোগাযোগ করলে ভালো হয়। জেনে নিন;- বিকাশ হেল্পলাইন , কাস্টমার কেয়ার, অভিযোগ নাম্বার ও লাইভ চ্যাট, গ্রাহক সেবা কেন্দ্র

এছাড়াও অনলাইনের মাধ্যমেও বিকাশ মার্চেন্ট একাউন্ট খোলা যায়। অনলাইনে বিকাশ মার্চেন্ট একাউন্ট খুলতে চাইলে নিচের স্টেপ গুলো ফলো করুন।

অনলাইনে মার্চেন্ট একাউন্ট খোলার নিয়ম

অনলাইনে বিকাশ মার্চেন্ট একাউন্ট খোলার জন্য প্রথমে ভিজিট করুন;- https://www.bkash.com/i-want-register/send-registration-request তারপর নিচের দেওয়া ফটোর মত একটি ফটো দেখতে পাবেন।

এখানে দেখতে পাচ্ছেন দুইটা অপশন দেখা যাচ্ছে। প্রথমত বিকাশ এজেন্ট একাউন্ট খোলার ফরম। দ্বিতীয়ত মার্চেন্ট একাউন্ট খোলার ফরম। আপনি মার্চেন্ট একাউন্ট লেখার উপর ক্লিক করুন।। এরপর যথাক্রমে ফরমটি পূরণ করুন;-

  • প্রথমে আপনার ব্যাবসায়ীক প্রতিষ্ঠানের নাম।
  • তারপর আপনার ওয়েবসাইট ঠিকানা। (যদি থেকে থাকে)
  • এরপর আপনার প্রতিষ্ঠানের কার্যালয়-এর ঠিকানা।
  • তারপর ব্যবসায় প্রতিষ্ঠানের ধরন।
  • তারপর ব্যবসায় প্রতিষ্ঠানের বর্তমান অবস্থান।
  • তারপর প্রতি মাসে আনুমানিক কত কত মার্চেন্ট একাউন্টে আসতে পারে তার পরিমাণ লিখুন।
  • এবার যদি মার্চেন্টার হতে চান তার নাম লিখুন।
  • তারপর যোগাযোগ নাম্বার লিখুন।
  • তারপর আইডি নাম্বার (জাতীয় পরিচয়পত্র বা স্মার্টআইডি/পাসপোর্ট/ড্রাইভিং লাইসেন্স)
  • তারপর মেয়াদসহ চলমান ট্রেড লাইসেন্স নাম্বার
  • তারপর ইমেইল এড্রেস দিন।
  • তারপর ক্যাপশা যোগ করুন।
  • এরপর সাবমিট (জমা) দিন।
  • তারা আপনার কাগজপত্র গুলো চেক করে ৭২ ঘন্টার বিতর সাধারণত এপ্রুভ করে দিবে।

বিকাশ মার্চেন্ট একাউন্টের চার্জ ফি

বিকাশ মার্চেন্ট একাউন্টের ফি অন্যান্য একাউন্টের তুলনায় তথা ক্যাশ আউটের তুলনায় কম রয়েছে।

বিকাশ মার্চেন্ট একাউন্টের সাধারণত ফি ১.৭০০০৳ অর্থাৎ ১০০% এর মধ্যে ১.৭০০%। অর্থাৎ প্রতি হাজারে ১৭৳।

এছাড়াও ই-ক্যাব এর সদস্যদের জন্য রয়েছে আরো ছাড়। হাজারে মাত্র ১৫৳।

অন্যদিকে ক্যাশ সামলে চার্জ হলো ১৮৳। বিকাশের সকল সার্জ সম্পর্কে বিস্তারিত জানতে পড়ুন;- বিকাশ ক্যাশ আউট সার্জ (২০২১) ও অন্যান্য সার্জ সমূহ বিস্তারিত

কিভাবে মার্চেন্ট একাউন্ট থেকে টাকা উত্তোলন করতে হয়?

বিকাশ মার্চেন্ট একাউন্ট থেকে চাইলেই টাকা উঠানো যায় না। এবং বিকাশ মার্চেন্ট একাউন্টে সেন্ড মানি ও ক্যাশ আউটও করা যায় না।

বিকাশ মার্চেন্ট একাউন্টের টাকা গুলো সরাসরি আপনার ব্যাংক একাউন্টে যোগ হবে। এমনটা জানিয়েছেন money.com.bd ।আমরা বিস্তারিত পরে জানাবো।

বিকাশ একাউন্টের পিন ভুলে গেলে কিংবা পিন লক খুলতে পড়ুন;- বিকাশ পিন রিসেট করার নিয়ম! বিকাশ পিন লক হলে করণীয়

আর আপনি যদি বিকাশ মার্চেন্ট একাউন্ট খোলার পর পার্সোনাল একাউন্ট বন্ধ করে দিতে চান তাহলে পড়ুন;- বিকাশ একাউন্ট বন্ধ করার নিয়ম ।। A টু Z বিস্তারিত জেনে নিন।।

RELATED ARTICLES

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

Most Popular

Recent Comments

error: Content is protected !!